বন

বনাঞ্চলকে- ৪ ভাগে ভাগ করা যায়

সামাজিক বনায়ন কর্মসূচী- ১৯৭৯ সালে

জাতীয় বননীতি- ১৯৯৪ সালে

 

বন আইন - ১৯৯২ ও ২০০২ সালে

রাষ্ট্রীয় বন নেই- ২৮টি জেলায়

দীর্ঘতম বৃক্ষ- বৈলাম বৃক্ষ(বান্দরবানে জন্মে)

 

বন গবেষণা কেন্দ্র- চট্টগ্রামে

হরিণ প্রজনন কেন্দ্র- কক্সবাজারের ডুলাহাজরায়

 

শাল গাছের জন্য বিখ্যাত- ভাওয়াল ও মধুপুরের বন

বরেন্দ্রভূমি- রাজশাহীতে

 

সুন্দরবন

বাংলাদেশের জাতীয় বন- সুন্দরবন

বিশ্ব ঐতিহ্য (World Heritage)- সুন্দরবন

সুন্দরবনকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে- UNESCO (১৯৯৭ সালে) (৫২২তম)

মোট বনভূমি- ২৫ লক্ষ হেক্টর/ ২৫ হাজার বর্গকিমি

বনভূমি মোট ভূমির- ১৭.৫০%

সুন্দরবনের আয়তন - ৫৭৪৭ বর্গকিমি(অথবা ৫৫৭৫ বর্গকিমি)/ ২৪০০ বর্গমাইল

বাংলাদেশে সুন্দরবনের- ৬২% (বাকি ৩৮% ভারতে)

সুন্দরবনকে স্পর্শ করেছে- ৫টি জেলা

পৃথিবীর বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন- সুন্দরবন (সুন্দরবন টাইডাল বনও বটে)

সুন্দরবনের ৩টি এলাকাকে অভয়ারণ্য ঘোষণা করা হয়েছে।

সুন্দরবনের প্রধান গাছ- সুন্দরী

Twitter icon
Facebook icon
Google icon
StumbleUpon icon
Del.icio.us icon
Digg icon
LinkedIn icon
MySpace icon
Newsvine icon
Pinterest icon
Reddit icon
Technorati icon
Yahoo! icon
e-mail icon